আল কোরানের ১০ম পারায় যা বলা আছে। hadith of the day।

hadith of the day।

আল কোরানের ১০ম পারায় কি বলা হয়েছে তা নিচে আলোচনা করা হল।

আল্লাহ্‌র প্রতি অগাত বিশ্বাস ও মনোবলে মুসলমান গন ৩৫০ জন সৈন্য লইয়া কাফেরদের ৯৫০ জন সৈন্যর সাথে যোধও করিয়া জয়লাভ করেন।

কাফের দের ১২ জন দলপতি প্রতিদিন ১০ টি উট জবেহ করিয়া তাদের সৈন্যদের পরিবেশন করিতেন। আল্লাহ্‌ ইমান্দার গনের সাহায্য কারি।

নবী {সাঃ} কাফেরদের প্রায় প্রত্যেক ঘোষটির সাথে সন্ধি করেন। কিন্তু তারা প্রতেকেই সন্ধির প্রতিজ্ঞা ভঙ্গ করেন। এতপর তাদেরকে ১০ই জিল হজ্জের  পরে ৪ মাস পর্যন্ত জুদ্দ বিগ্রহ হতে  স্থগিত থাকিবার নির্দেশ দেন যাহা  তাহারা পালন করেন। তৎপর তাহারা যা খুশি তা করিতে থাকিলে তাদের কে কঠোর হাতে দমন করার নির্দেশ দেন। যাহারা ধর্ম প্রান আল্লাহ্‌র রাস্তায় জেহাদ করে। উহাদের মর্যাদা আল্লাহ্‌র সমীপে অতি বড়, ইহারাই পূর্ণও সফল কাম। তোমরা তোমাদের পিতাও মাতাদের কে  ইমানের মোকাবেলায় কাফের কে প্রিয় মনে করিলে তাহাদের বন্ধ রুপে গ্রহণ করিও না। আর যাহারা তোমাদের  মধ্যে থেকে তাহাদের সাথে বন্ধ্যত্ব রাখিবে তাহাদেরকেও। তোমরা জান যুদ্ধ ক্ষেত্রে  কাফের দের সংখ্যা বেশি ও হনাইনে

 তোমাদেরকে বিজিত করিয়াছে। নাসারারা বলে মসীহ হল আল্লাহ্‌র পুত্র। ইহা তাদের মুখের কথা ছাড়া আর কিচ্ছুই না। আল্লাহ্‌ মহান, করুণাময়, ক্ষমাশীল। তাহারাও যদি ক্ষমা চায় আল্লাহ্‌  তাদের ক্ষমা করিয়া দেন। তোমরা যদি ধর্মীয় যুদ্ধে অংশ না করে ঘরে বসে থাক, মনে রাখিবে আল্লাহ্‌ নবীকে সাহায্য করিবেন। যেমন গুহায় ২ জন স্থলে ৩ জনের কথা নবী {সাঃ} বলিয়াছেন- তখন আল্লাহ্‌ই তাহার সাহায্য ডাটা ছিলেন। আল্লাহ্‌ প্রবল প্রজ্ঞাময় ও তোমাদের জন্যে অতি উওম। সুতরাং আল্লাহ্‌র রাস্তায় ধন-সম্পদ ও প্রান দিয়া যুদ্ধ কর। যাহারা অবহেলা করে তাহারা  আল্লাহ্‌ ও পরকালে বিশ্বাস করে না। এমন লোকের ভাগ্যে দোযখের আগুন রয়েছে।

যারা নামাজের পাবন্ধি করে, যাকাত প্রদান করে, যারা সৎ বিষয়ে শিক্ষা দেয়, অসৎ বিষয় হইতে বারন করে সেই নবী গণের অনুসরণ করে। নিশ্চয় আল্লাহ্‌ তাদের উপর রহমত বর্ষণ করেন।

ইহা হইতেছে অতি বড় সফলতা।