আল কোরানের ২য় পারার শানে নুযূল।hadith of the day

আজ আপনাদের জানাব ২য় পারার কথা।

ইমানদার গন নিয়মিত নামাজ পড়ে ও ভাল কাজে সময় বেয় করে।

মুনাফিকদের কান সত্য কথা শুনে না, মুখ সত্য কথা বলে না, চোখ ভাল পথ দেখে না।যারা নিজের ইচ্ছায় খারাপ কাজ করে, তাদের কে পাপ্সমুহ ঘিরে ধরবে এবং তারাই ধুজখে যাবে।

সেখানে অনন্তকাল থাকিবে। মুশ্রিকেরা অনেক কিছু শুনিত কিন্তু আমল করত না।

তাহাদের চেয়ে জালিম আর কেউ নয় যাহারা আল্লহার নিকট হতে প্রাপ্ত শ্বাক্ষও গোপন রাখে। আল্লাহ্‌ তাদের সম্পর্কে অবগত আছেন।

নবি {সাঃ} চাহেন মানুষ মধ্যপন্থা অবলম্বন করে চলুক। কোরবানি দিতে অক্ষম বেক্তি হজের পূর্বে ৩ দিন ও পরে ৭ দিন মোট ১০ দিন রোযা রাখিবার নির্দেশ দেন। মা তাহার সন্তানকে দুই বছর পর্যন্ত স্তন্য পান করাইবেন। অন্য মহিলাকে

যথাবিহিত ভরণপোষণ প্রদান করিয়াও ইহা পালন করা উচিৎ। আল্লাহ্‌ বেতিত কোন মাবূদ নাই, তিনি পরম দয়ালু করুণাময়। তিনি আসমান, জমিন, দিবা-রাতি তৈরি করিয়া তাহা পরিচালনা করিতেছেন। আল্লাহ্‌ আলীম গন কে জানান আশা করি তোমরা আল্লাহ্‌র শান্তিপূর্ণ আইনের বিরোধিতা হইতে বিরত থাকিবে।

যেকোনো অবস্থায় রমজানের রোযা ভীষণ কষ্ট না হইলে ভাঙা জায়েজ নহে।

অহংকারীদের যথোক্তযুক্ত শাস্তি জাহান্নাম। সম্মানিত মাসে যুদ্ধ করা গুরুতর অপরাধ। ধর্ম জেহাদে আল্লাহ্‌র রহমতে আশা থাকে, মদ ও জুয়া গুরুতর পাপ ও কোন কোন স্থানে উপকারও রয়েছে। আল্লাহ্‌ যাহাকে ইচ্ছা রাজ্য ধান করেন।

আল্লাহ্‌ আক দলকে অন্য দল দ্বারা প্রদমিত করিয়া রাখেন। না হলে বিশ্ব অশান্তিপূর্ণ হইয়া পড়িত। আল্লাহ্‌ বিশ্বাসীদের প্রতি খুবই অনুগ্রহশিল।

 আঃ সমুদয় আল্লাহ্‌র আয়াত।

সুরা বাকারার ১২৭ – ১২৯ নম্বর আয়াত অতি গুরুত্বপূর্ণ।